Thursday , August 11 2022
Breaking News
Home / পাবনা সদর / শক্ত হাতে দায়িত্ব পালন করুন নতুবা সেচ্ছায় দায়িত্ব ছেড়ে দিন; পাবনায় জেনারেল হাসপাতাল পরিদর্শনে স্বাস্থ্যের অতিরিক্ত সচিব, সেবার মান নিয়ে অসন্তোষ; পরিচ্ছন্নতার নির্দেশ সহকারী পরিচালককে

শক্ত হাতে দায়িত্ব পালন করুন নতুবা সেচ্ছায় দায়িত্ব ছেড়ে দিন; পাবনায় জেনারেল হাসপাতাল পরিদর্শনে স্বাস্থ্যের অতিরিক্ত সচিব, সেবার মান নিয়ে অসন্তোষ; পরিচ্ছন্নতার নির্দেশ সহকারী পরিচালককে

ঝটিকা সফরে পাবনা জেলারেল হাসপাতাল পরির্দশণ করলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মোঃ সাঈদুর রহমান। ০৩ জুলাই (রবিবার) দুপুরে তিনি ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট এই হাসপাতাল পরিদর্শনে করেন। এসময় তিনি হাসপাতালের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজসহ জরুরী বিভাগ, রন্ধনশালা, শিশু, গাইনী, মেডিসিন ও পেইং ওয়ার্ড ও অপারেশন থিয়েটার কক্ষ পরিদর্শন করেন। একই সাথে তিনি হাসপাতালের বাহিরের পরিদর্শন করে নোংরা পরিবেশ, ব্যবহার অনুপযোগী ওয়াশরুম,বাথরুম দেখে বেশ অসন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি।
এসময় তিনি হাসপাতালের দায়িত্বে থাকা পরিচ্ছন্নকর্র্মীদের সাথে কথা বলেন। পরিদর্শন শেষে তিনি হাসপাতালের দায়িত্বে থাকা সহকারী পরিচালক ডা. মো: ওমর ফারুক মীরের প্রশাসনিক কক্ষে হাসপাতালের কর্মকর্তা ও বিভিন্ন বিভাগের জোষ্ঠ চিকিৎসকদের সাথে সংক্ষিপ্ত মতবিনিময় করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, হাসপাতালে উন্নয়ন কাজের দায়িত্বরত গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: ফয়সাল রহমান, সিভিল সার্জন ডাঃ মনীসর চৌধুরী, জৈষ্ঠ চিকিৎসক ডা. শাফিকুল হাসান, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. জাহিদুল ইসলাম, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক জৈষ্ঠ চিকিসক ডা. সালেহ মুহম্মদ আলী, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সাধারন সম্পাদ ডা. জাহেদী হাসান রুমী, জৈষ্ঠ চিকিৎসক ডা. আমিনুল রশিদ আকন্দ, প্রবীন সাংবাদিক আখতারুজ্জানসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।
এসময় অতিরিক্ত সচিব হাসপাতালের সেবার মান বৃদ্ধির জন্য সম্ভাব্য কি কি প্রয়োজন সেটি নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা করেন কর্তৃপক্ষের সাথে। এসময় হাসপাতাল ভবনের চতুর্থ তলাতে দুই কক্ষ বিশিষ্ট আলাদা একটি চক্ষু সেবা প্রদান স্থান নির্মান। হাসপাতালে সেবা নিতে আসা প্রাথমিক সেবাগ্রহিতাদের জন্য বাহিরে ৮ শয্যা বিশিষ্ট দুটি কক্ষ নির্মান। হাসপাতালের অব্যবহিত মালামাল অন্যত্র সরিয়ে বা নিলামে বিক্রি করে হাসপাতালের সুস্থ্য পরিবেশ ফিরিয়ে আনাসহ একই সাথে হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স রাখার জন্য অস্থায়ী দুটি সেডের ঘর নির্মাণের নির্দেশ প্রদান করেন।
এসময় তিনি সম্প্রতি হাসপাতালের বিভিন্ন মালামাল ক্রয় সংক্রান্ত বিষয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ নিয়ে প্রশ্ন তুললে সহকারী পরিচালক তার সঠিক উত্তর দিতে পারেনি। তখন তিনি বলেন, শক্ত হাতে প্রশাসন পরিচালনা করতে পারলে দায়িত্ব পালন করুন নতুবা সেচ্ছায় দায়িত্ব ছেড়ে দিবেন। কাউকে সাজা দেয়ার জন্য আমি এখানে আসিনি, তবে পরিবেশ আরো স্বাস্থ্যসম্মত হওয়া দরকার। পরিচ্ছন্নকর্মীরা কি করছে। হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগী বা চিকিৎসকেরা স্বাস্থসম্মত পরিবেশ না পেলে চিকিসা ভালো হবে কিভাবে। তাই সকলকে সচেতন হতে হবে। সকলের দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন করতে হবে। কোন প্রকারের অযুহাত দেখিয়ে লাভ নেই। পরিচ্ছন্ন কর্মীর সংকট রয়েছে তবে সেটিতো খুব বেশি দিনের নয়। যা আছে তাই দিয়ে আমাদের কাজ করতে হবে। নতুন প্রকল্পের মাধ্যমে দ্রুত জনবল নিয়োগ দিয়ে সমস্যার সমাধানের করা হবে। তবে সবার আগে আমাদের সচেতন ও দায়িত্বশীল হতে হবে। তবেই আমরা সাধারন মানুষের জন্য তৈরিকৃত এই সরকারি হাসপাতালে সেবা প্রদান করতে পারবো। পরে তিনি সিভির সার্জন অফিসে আয়োজিত একটি সভাতে যোগদান করেন।
পাবনা জেলার স্বাস্থ্য সেবাদানকারী সরকারি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অন্যতম সদরের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল। বিপদগ্রস্থ অসহায় সাধারন মানুষ সবার আগে এই হাসপাতালে ছুটে আসে সেবার জন্য। কিন্তু সম্প্রতি এই হাসপাতালে সেবার মান নিয়ে সাধারন মানুষের মধ্যে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা সাধারন মানুষদের পরতে হচ্ছে চরম বিপাকে। সরকারি এই হাসপাতালে বর্তমানে চরম অব্যবস্থাপনা ও অনিয়মের মধ্যে অতিবাহিত হচ্ছে। তাই পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সেবারমান উন্নয়নের জন্য স্বাস্থ্য বিভাগের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন স্থানীয়রা।

About admin

Check Also

পাবনায় ফজিলাতুননেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী উৎযাপিত

রফিকুল ইসলাম সুইট : পাবনায় নানা আয়োজনে উৎযাপিত হয়েছে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব এর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.