Breaking News
Home / পাবনা সদর / পাবনা জেলা পরিষদ নির্বাচনে আটঘরিয়া উপজেলা ৮নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য প্রার্থীদের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই

পাবনা জেলা পরিষদ নির্বাচনে আটঘরিয়া উপজেলা ৮নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য প্রার্থীদের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই

আটঘরিয়া প্রতিনিধি:
শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে পাবনা জেলা পরিষদ নির্বাচন। এই নির্বাচনকে সামনে রেখে সাধারণ আসন-৮নং আটঘরিয়া উপজেলার সদস্য প্রার্থীদের মধ্যে চলছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। তবে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা বিজয়ী হতে উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ৫টি ইউনিয়নে জনপ্রতিনিধিদের নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন।
আগামী ১৭ অক্টোবর (সোমবার) পাবনা জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত একমাত্র প্রার্থী হিসেবে বীর মুক্তিযোদ্ধা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য আ.স.ম আব্দুর রহিম পাকন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। জেলায় এখন শুধু সাধারণ ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
৮নং ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ৮১ টি। ভোটাররা হলেন-উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, কাউন্সিলর, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বরগণ।
এই জেলা পরিষদ নির্বাচনে আটঘরিয়া উপজেলার ৮নং ওয়ার্ডে মোট ৬জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। এরা হলেন- একদন্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ইসমাইল সরদার (তালা), চাঁদভা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা মো. কামরুজ্জামান টুটুল ( বৈদ্যুতিক পাখা), দেবোত্তর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এর সভাপতি শ্রী নিখিল কুমার সাহা ( হাতি), আটঘরিয়া উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মওলানা পান্নু (টিউবওয়েল), মোছা. রাশিদা পারভীন ( অটোরিক্সা) । এ নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী, ভোটারসহ সাধারণ জনগণের মধ্যে জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই।
নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ধীরে ধীরে নির্বাচন তত জমে উঠেছে। পোস্টার, লিফলেট, ফেস্টুন ও ব্যানারে ছেয়ে গেছে আটঘরিয়া উপজেলা সদর, পৌরসভা ও বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়গুলো। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা ও গাড়ীর বহর নিয়ে পৌরসভা ও ৫টি ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে জনপ্রতিনিধিদের সাথে কুশল ও মতবিনিময় সভা করছেন। আবার অনেক প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী একাকী ভোটারদের সাথে দেখা করে নানা কৌশলে ভোট প্রার্থনা করছেন। নির্বাচিত হতে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।
এ ব্যাপারে কথা হয় ৮নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য পদপ্রার্থী ইসমাইল সরদারের সাথে তিনি জানান, আমি আমার দলের জন্য রাজনীতি করি, আওয়ামী লীগ আমার শেষ ঠিকানা। আমি বিশ্বাস করি নেতাকর্মী আর জনগণ আমার সঙ্গে আছেন। তারা আমাকে পছন্দ করেন, আমি তাদের মতামতের ভিত্তিতেই জেলা পরিষদ নির্বাচনে তালা মার্কা প্রতিক নিয়ে লড়াই করছি।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আমি জেলা পরিষদ নির্বাচনে সাধারণ সদস্য পদপ্রার্থী হয়েছি। ভোটাররা বিজয়ের ব্যাপারে আমাকে নিশ্চিত করেছেন। বিজয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। ভোটাররা আমাকে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করবেন।
মো. কামরুজ্জামান টুটুল সদস্য পদপ্রার্থী প্রতিনিয়ত সকাল থেকে দিনব্যাপী বৈদ্যুতিক পাখা মার্কা প্রতীকে দোয়া ও ভোট প্রার্থনা করেছেন।
কথা হয় সাধারণ সদস্য পদপ্রার্থী গোলাম মওলা পান্নুর সাথে তিনি বলেন, আমি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আদর্শের সৈনিক। আমার নির্বাচনী প্রতিক টিউবওয়েল। আমি বিশ্বাস করি ভোটারগণ আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।
সাবেক জেলা পরিষদের সদস্য রাশিদা পারভীন জানান, আমি জেলা পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য থাকা অবস্থায় আমার ওয়ার্ডে ব্যাপক উন্নয়ন মুলক কাজ করেছি। আমি এবারও আশাবাদী ভোটাররা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে আমার অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করার সুযোগ দিবেন।

Check Also

জনগনের কল্যাণে রাজনীতি করে যেতে হবে -ডেপুটি স্পীকার

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সব সময় উন্নয়নে বিশ্বাস করে। আওয়ামী লীগের রাজনীতি করতে হলে জনগনের চাহিদা …

১০ ডিসেম্বর নিয়ে বিএনপি মানুষের মধ্যে গুজব ছড়াচ্ছে-সাহাবুদ্দিন চুপ্পু

পিপ : আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ও সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা কমিটির চেয়ারম্যান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *