Sunday , October 2 2022
Breaking News
Home / চাটমোহর / চাটমোহরে ১টি আবাসিক মিটারে সাড়ে ১১ লাখ টাকার ভূতুরে বিল!

চাটমোহরে ১টি আবাসিক মিটারে সাড়ে ১১ লাখ টাকার ভূতুরে বিল!

চাটমোহর প্রতিনিধি
পাবনার চাটমোহর পৌর সদরের একটি আবাসিক ভবনের মিটারে সেপ্টেম্বর মাসে সাড়ে ১১ রাখ টাকার ভূতুরে বিদ্যুৎ বিল আসার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঐ ভবনে কেউ বসবাস না করলেও বিদ্যুৎ বিল এসেছে ১১ লক্ষ ৩৩ হাজার ৫শত ৮৭ টাকা! আর ব্যবহার হয়েছে ৯০ হাজার ১ শত ৫০ ইউনিট। বিল প্রস্তুত কারক আসমা। সমিতির এজিএম (অর্থ) এর স্বাক্ষর সম্বলিত বিলটি ১৩ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাড়ির মালিক হাতে পান। কিন্তু মিটার মালিকের পরিবার জানান গত ৬ মাসে পরিবারের কোন সদস্যই থাকেন না বাড়িতে। এরকম ভৌতিক বিল পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ-১ সমিতির অফিসে নতুন কোন বিষয় না। কারো নজরদারী না থাকায় এসকল ঘটনা ঘটলেও পবিস-১ প্রশাসন নিরব ভুমিকা প্রদর্শন করে। জোর করেই দোষ চাপানো হয় গ্রাহকের ঘাড়ে। এই অফিসের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে,অদক্ষ অপারেটর দ্বারা বিদ্যুৎ বিল তৈরির ফলে বিদ্যুৎ বিলের কপিতে নাম, পিতার নাম,মোবাইল নম্বর ভুলে ভরা। তারা মিটার রিডিং না করে অফিসে বসেই বিদ্যুৎ বিল তৈরি করেন বলেও অভিযোগ। এছাড়া মিটারে কম বিদ্যুৎ ব্যাবহার দেখিয়ে বছর শেষে হাতিয়ে নেয় অবিরিক্ত টাকা। ফলে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির প্রায় ৩ লক্ষ গ্রাহক ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছেন নানা সময়। এছাড়া প্রতিমাসে মিটার ভাড়া হিসেবে আদায় করা হচ্ছে লাখ লাখ টাকা।
গত ১৩ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় ম্যাসেঞ্জার চাটমোহর পৌর শহরের জিরো পয়েন্টে অধীর কুমার সরকারের বাড়ির ৪৭৬৬ নং হিসাবের সেপ্টেম্বর-২২ মাসের বিদ্যুৎ বিল দায়িত্বরত লোকের কাছে দিয়ে চলে যান। এসময় পরিবারের লোকজন বিদ্যুৎ বিলের পরিমান দেখে আতকে উঠেন। মিটার রিডার রেজাউলকে ডেকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি দেখছি বলে এই বিলের কপিটি নিয়ে নিতে চান। পরে রাতে আবারো নতুন করে প্রিন্ট দেওয়া হয় এই বিল। সকালে এজিএম (অর্থ) কে দিয়ে জোর পূর্বক আগের বিল নিয়ে নতুন বিল চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন মিটার রিডার।
এসকল বিষয় নিয়ে ভূক্তোভগী চরম অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। অদক্ষ লোকবল আর কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করার অনুরোধ জানান সমিতির সদস্যরা।
বিল প্রস্তুতকারী আসমা খাতুন ভূল স্বীকার করে জানান,মানুষই ভুল করে। কাজ করতে গেলে একটু ভূল হতেই পারে। নিউজটি প্রকাশ না জন্যও অনুরোধ করেন তিনি।
এ বিষয়ে পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ- ১ এর জেনারেল ম্যানেজার মোঃ আকমল হোসেন জানান,বিলটি কেউ ক্রসচেক করলে এমনটি হতো না। যদি কারো দোষ থাকে তার বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

About admin

Check Also

খেলা চালাতে স্কুল মাঠে বিষপ্রয়োগ!

চাটমোহর প্রতিনিধি পাবনার চাটমোহরে ফুটবল টুর্ণামেন্টের খেলা চালাতে বিষপ্রয়োগ করা হয়েছে সরকারি স্কুল মাঠে। গত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.