Sunday , October 2 2022
Breaking News
Home / চাটমোহর / চাটমোহরে পাট নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন চাষিরা

চাটমোহরে পাট নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন চাষিরা

বিশেষ প্রতিনিধি
পাট নিয়ে এবার চরম খোগান্তিতে পড়েছেন কৃষকেরা। খালে-বিলে পানি না থাকায় তাদের এমন ভোগান্তি। ভরা বর্ষার ভরা মৌসুমে এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি কখনও হননি পাট চাষিরা। পর্যাপ্ত বৃষ্টি না হওয়াসহ বর্ষার পানি খাল-বিলে না থাকায় চরম বিপাকে পড়েছেন তারা। পরিপক্ব হবার পরও পানির অভাবে অনেকে পাট কেটে জাগ দিতে পারেননি। তারপরও সকল সংকট ও হতাশা কাটিয়ে এখন পাট নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন চাষিরা। নতুন পাট ঘরে তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। পাশাপাশি পাটের দামও ভালো পাচ্ছেন।
উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে,চলতি বছর পাটের আবাদ বৃদ্ধির পাশাপাশি ফলনও হয়েছে আশাতীত। ভাল ফলন ও দামও পাচ্ছেন। খরা পরিস্থিতির কারণে মৌসুমের শুরু পাট জাগ দেওয়া নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় পড়েন পাট চাষিরা। কয়েকদিনে বৃষ্টিতে কিছু পানি জমে যাওয়ায় পাট জাগ দেন তরা। তাছাড়া অনেক পুকুর মালিক এবার মাছের আবাদ বাদ রেখে পাট জাগ দেওয়ার জন্য পুকুর লীজ দিয়েছেন চাষিদের কাছে। উপজেলার বড়াল,চিকনাই,গুমানী,রতœাইসহ বিভিন্ন বিলে হাচার হাজার পাটের জাগ পড়ে। এই পাট এখন ধোয়া আর শুকানোর কাছে ব্যস্ত চাষিরা। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত শত শত নারী শ্রমিক পাট কাঠে থেকে পাট ছাড়ানোর কাজ করছেন। চাটমোহরের হাট-বাজারে প্রতিমণ পাট বিক্রি হচ্ছে ৩০০০ টাকা থেকে ৩২০০ টাকা। ভালো মানের পাটের দাম আরো বেশি।
উপজেলার মূলগ্রামের কৃষক রহমত আলী বলেন,পানি না পেয়ে নিচু জায়গায় জমে থাকা বৃষ্টির পানিতে পাট জাগ দিয়েছি। এতে পাটের আঁশ কালো রঙের ফ্যাকাসে হয়ে যাচ্ছে। দাম কম হচ্ছে। আরেক কৃষক আঃ মুতালেব বলেন,প্রতি বিঘা জমিতে পাট চাষে ১৫ হাজার টাকার মতো খরচ হয়েছে।অতিরিক্ত খরা ও অনাবৃষ্টির কারণে বিঘাপ্রতি ৮ মণ পাট উৎপাদন হয়েছে। বর্তমান পাটের মূল্য জাতভেদে মণ প্রতি তিন হাজার টাকার ওপরে। কিন্তু জমি থেকে পাট নিয়ে জাগ দিতে এবার খরচ বেশি হয়েছে।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এ বছর উপজেলায় ৮৮৯০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ হয়েছে। যা গত বছরের চেয়ে বেশি।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ এ মাসুমবিল্লাহ বলেন,গতবছর ভালো দাম পাওয়ায় চলতি বছর কৃষকরা লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি জমিতে পাটের আবাদ করেছেন। ফলনও ভালো হয়েছে। কিন্তু এবার বর্ষায় পানি আসেনি জনপদে, তেমন বৃষ্টিপাতও হয়নি। ফলে পাট জাগ দিতে ভোগান্তিতে পড়েন চাষিরা।

About admin

Check Also

খেলা চালাতে স্কুল মাঠে বিষপ্রয়োগ!

চাটমোহর প্রতিনিধি পাবনার চাটমোহরে ফুটবল টুর্ণামেন্টের খেলা চালাতে বিষপ্রয়োগ করা হয়েছে সরকারি স্কুল মাঠে। গত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.