Breaking News
Home / চাটমোহর / চাটমোহরের বাজার থেকে এবার দিয়াশলাই উধাও!

চাটমোহরের বাজার থেকে এবার দিয়াশলাই উধাও!

চাটমোহর প্রতিনিধি
সংসারের প্রতিটি কাজের মাঝে অন্যতম কাজ রান্না। সেই রান্নার কাজ করতেই লাগে দিয়াশলাই। আর যদি সেই দিয়াশলাই বাজারে দুস্প্রাপ্য হয়ে যায় তবে অবস্থা কেমন হতে পারে তার চিত্রটি ফুটে উঠেছে পাবনা জেলার সর্বত্র। বিশেষ করে চাটমোহর উপজেলাতে।
সয়াবিন তেলের পর এবার চাটমোহরের বাজার থেকে দিয়াশলাই উধাও হয়েছে। খুচরা-পাইকারি কোথাও এক বাক্স দিয়াশলাই পাওয়া যাচ্ছে না। এতে ভোক্তারা বেকায়দায় পড়েছেন। কোথাও পাওয়া গেলেও এক টাকার দিয়াশলাই বাক্স দুই টাকা আর দুই টাকারটা ৩-৪ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ইতোমধ্যেই দিয়াশলাইয়ের বিকল্প লাইটারও বিক্রি বেড়ে গেছে। ক্রেতাদের দাবি,এই সুযোগে দামও বেড়ে গেছে এসব পণ্যের।
শনিবার (২১ মে) চাটমোহর শহরের বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দিয়াশলাই পাওয়া যাচ্ছে না। যদি কোথাও পাওয়া যায়,তবে দাম বেশি। বাজারের জানান, প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে ফ্যাক্টরি থেকে ম্যাচ সরবরাহ করা হচ্ছে না। মজুত যা ছিল গত কয়েকদিনে সব বিক্রি করে দিয়েছি। এখন কারো কাছে স্টক নেই। খুচরা দোকানদারদের কাছে কিছু স্টক থাকতে পারে। সুযোগ বুঝে তারা বেশি দামে বিক্রি করতে পারে বলেও জানান তিনি। ম্যাচের বিকল্প লাইটার বিক্রি বেড়ে গেছে বলে জানান খুচরা ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান। তিনি বলেন,‘লাইটারের দামও ৫ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। পাইকারদের কাছ থেকেও বেশি দামে কিনতে হচ্ছে।’
ক্রেতা আকতার হোসেন বলেন,‘সয়াবিনের মতো ম্যাচও কারসাজি করে উধাও হয়েছে। গম আমদানির সমস্যার কথা প্রচারের সঙ্গে সঙ্গে বাজারে আটার দাম লাফ দিয়ে বেড়ে গেলো। কী যে হচ্ছে বুঝতে পারছি না।’
এবিষয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর,পাবনার সহকারী পরিচালক জহিরুল ইসলাম বলেন,‘ম্যাচ উধাওয়ের বিষয়টি এখনও জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

Check Also

চাটমোহরে তাজা ও বিস্ফোরিত ককটেল উদ্ধার বিএনপি’র নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

চাটমোহর প্রতিনিধি চাটমোহর পৌর শহরের আফ্রাতপাড়া মহল্লায় বিএনপি নেতা হাসাদুল ইসলাম হীরার মালিকানাধিন ডায়মন্ড ফুড …

চাটমোহরে ট্রলির চাপায় শিক্ষক নিহত

চাটমোহর প্রতিনিধি চাটমোহর-জোনাইল সড়কের চাটমোহর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের সোন্দভা নামক স্থানে খড়ি বোঝাই ট্রলির নিচে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *