Breaking News
Home / সুজানগর / কে হচ্ছেন জেলা পরিষদের চার নং ওয়ার্ড (সুজানগর উপজেলার) নতুন সদস্য

কে হচ্ছেন জেলা পরিষদের চার নং ওয়ার্ড (সুজানগর উপজেলার) নতুন সদস্য

এম এ আলিম রিপন
রাত পোহালেই ১৭ অক্টোবর জেলা পরিষদ নির্বাচন। এ নির্বাচনে কে হচ্ছেন জেলা পরিষদের ৪ নং ওয়ার্ডের (সুজানগর উপজেলা) নির্বাচিত নতুন সদস্য এ নিয়ে স্থানীয় মানুষদের মাঝে চলছে ব্যাপক জল্পনা-কল্পনা। নির্বাচনে ৪ নং ওয়ার্ডের(সুজানগর উপজেলা) সাধারণ সদস্য পদে মোট ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রার্থীরা হলেন মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত আহমেদ তফিজ উদ্দিনের পুত্র এবং বর্তমানে পাবনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবিরের আপন ছোট ভাই আহম্মেদ ফররুখ কবির বাবু (টিউওবয়েল) প্রতিক নিয়ে , মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও দুলাই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রয়াত আব্দুর রহিম মোল্লার পুত্র রেজাউল করিম বাচ্চু মোল্লা (বৈদ্যুতিক পাখা) প্রতিক নিয়ে এবং হাটখালী গ্রামের বাসিন্দা ও আনন্দ টিভির জেলা প্রতিনিধি সেলিম মোর্শেদ রানা(তালা) প্রতিক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ ছাড়া সুজানগর,বেড়া ও সাঁথিয়া উপজেলা নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত ২ নং ওয়ার্ডে ২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হলেন আনোয়ারা আহমেদ(ফুটবল ) প্রতিক নিয়ে এবং অপরজন শামসুন্নাহার মুক্তা(টেবিল ঘড়ি) প্রতিক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ নির্বাচনে ৪ নং ওয়ার্ডের(সুজানগর উপজেলা) সাধারণ সদস্য পদে ৩ জন প্রার্থীর মধ্যে একজন কে বিজয়ী করতে স্থানীয় সরকারের সুজানগর উপজেলার ১৪৬ জন নির্বাচিত প্রতিনিধি ভোট দিবেন। এর আগে নির্বাচনী প্রচারণার শেষ দিন শনিবার রাত ১২টার আগ পর্যন্ত সদস্য প্রার্থীরা সুজানগর এলাকাকে নিজের অনুকূলে আনার লক্ষ্যে দিনরাত সময় দেন। নির্বাচনের পূর্ব মুহুর্তে প্রচার প্রচারণা আর জনগণের মাঝে পরিচিতি লাভ করার জন্য ব্যাপক ভাবে গনসংযোগও করে বেড়ান প্রার্থীরা। এবং ভোটারদের ভোটের মাঠে আকৃষ্ট করার চেষ্টা করেন। গনসংযোগের পাশাপাশি পোষ্টার, ব্যানার, লিপলেট টাঙ্গিয়ে নির্বাচনী প্রচারণাও চালান তাঁরা । তবে ভোটারের জানান, একজন সৎ, ন্যায়-পরায়ন ও জনবান্ধব প্রকৃতির লোক এবং বিপদে, দূঃসময়ে আমরা যার মাধ্যমে বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা পাবো এমন একজন প্রার্থীকেই ভোট দিবো। এ ব্যাপারে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের নিকট জানতে চাইলে তারা সকলেই পৃথক পৃথকভাবে জানান, নির্বাচনী এলাকার মানুষের সেবা করার প্রতিজ্ঞা নিয়ে নির্বাচনে নেমেছি। নির্বাচনী এলাকাকে একটি মডেল এলাকা হিসেবে পরিণত করাই হবে আমার লক্ষ্য। জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন সাধারণ কর্মী হিসেবে এলাকার উন্নয়নের অংশীদার হতে চাই। সকল প্রার্থীই আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, ভোটারেরা ভোট দিয়ে তাকে এলাকার উন্নয়ন মূলক কাজ করার সুযোগ দিবে। এছাড়া প্রার্থীরা জেলা পরিষদ নির্বাচনে জয়যুক্ত হওয়ার জন্য নির্বাচনী এলাকার সকল ভোটারদের দোয়া ও আশীর্বাদও কামনা করেন। তবে রেজাউল করিম বাচ্চু মোল্লা, ফররুখ কবির বাবু নাকি সেলিম মোর্শেদ রানা কে হচ্ছেন পাবনা জেলা পরিষদের ৪ নং ওয়ার্ডের নতুন নির্বাচিত সদস্য তা দেখার জন্য অপেক্ষা করতে হবে ১৭ অক্টোবর বেলা ২ টা পর্যন্ত। এদিকে সুজানগর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফাতেমা খাতুন জানান, অবাধ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠ নির্বাচন উপহার দিতে ইতিমধ্যে তাঁরা প্রায় সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন।

Check Also

শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক ও প্রযুক্তিবান্ধব হিসেবে গড়ে তুলতে হবে-এমপি ফিরোজ কবির

এম এ আলিম রিপন শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক ও প্রযুক্তিবান্ধব হিসেবে গড়ে তুলতে হবে বলে জানিয়েছেন পাবনা-২ …

সুজানগরে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি বিষয়ক সেমিনার

এম এ আলিম রিপন পাবনার সুজানগরে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি জি-টু-পি পদ্ধতিতে বাস্তবায়ন বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *