Sunday , October 2 2022
Breaking News
Home / পাবনা সদর / অনৈতিক লেনদেনের অভিযোগে পাপবিস-১ এর ডিজিএম বরখাস্ত

অনৈতিক লেনদেনের অভিযোগে পাপবিস-১ এর ডিজিএম বরখাস্ত

পিপ : অনৈতিক লেনদেনের অভিযোগে পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ দাশুড়িয়া জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার সাজ্জাদুর রহমানকে বরখাস্ত করা হয়েছে। ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) আকমল হোসেন জানান, প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয় থেকে ডিজিএম সাজ্জাদুর রহমানকে শোকজ ও চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তাকে ময়মনসিংহ তত্ত্বাবধায়ক কার্যালয়ে সংযুক্ত করা হয়েছে।
জিএম আকমল হোসেন বলেন, এছাড়া ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাবার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে কর্তৃপক্ষ। তবে, কত সদস্যের কমিটি ও কতদিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে সেটি জানতে চাইলে তদন্তের স্বার্থে জানাতে অপারগতা জানান তিনি।
এর আগে গত ১৪ সেপ্টেম্বর আমিনুল ইসলাম রানা নামের এক খেলাপী গ্রাহক নতুন করে বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে ডিজিএম সাজ্জাদুর রহমানকে টাকা দিচ্ছেন-এমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।
আমিনুল ইসলাম রানার অভিযোগ, একটি বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে অনেকদিন ধরে ঘোরাচ্ছিলেন ওই কর্মকর্তা। পরে তিনি সংযোগ দিতে তার কাছে এক লাখ টাকা দাবি করেন। সেই টাকা দিতে গিয়েছিলেন। এখন কে বা কারা পেছন থেকে ভিডিও করেছে জানি না।
ডিজিএম ফাঁসাতে নিজের লোক দিয়ে পূর্বপরিকল্পিতভাবে ভিডিও করেছেন-এমন অভিযোগ অস্বীকার করে আমিনুল বলেন, ডিজিএম নিজেকে রক্ষার জন্য ঘুষ নেবার ভিডিও নিয়ে আবোল তাবোল বলেছেন।
পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ দাশুড়িয়া জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) সাজ্জাদুর রহমান টাকা নেবার ভিডিওটিকে ব্লাকমেইলিং করা হয়েছে বলে দাবি করেন। রোববার দুপুরে তিনি বলেন, আমিনুল ইসলাম রানার বাবার নামে তাদের বিদ্যুৎ সংযোগে ৯ লাখ ৩ হাজার ৯৪৮ টাকা বিল বকেয়া রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে পরিশোধ না করায় তার সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।
আমিনুল ইসলাম আদালতে রীট করলে আদালত তাকে ৬ মাসের মধ্যে বিল পরিশোধ করার নির্দেশনা দেয়। আমরা ৬ মাসের মাসিক কিস্তিতে বিল পরিশোধ করার ব্যবস্থা করে দেই। কিন্তু তিনি বিল পরিশোধ না করে উল্টো আমাকে দেখে নেবার নানারকম হুমকি ধামকি দেন। সেই টাকা পরিশোধ না করে আমিনুল ইসলাম ভিন্ন নামে নতুন আরেকটি সংযোগ নেবার চেষ্টা করছিলেন।
ডিজিএম আরও বলেন, ওইদিন তিনি নতুন সংযোগ নিতে আসলে তাকে জানানো হয় আগের বকেয়া বিল পরিশোধ করতে হবে। তখন তিনি টাকা বের করে আমাকে দেন। আমি টাকা নিয়ে তাকে বলি টাকাটা ক্যাশ কাউন্টারে জমা দেন। এসময় তাদের কয়েকজন মোবাইলে ভিডিও করে সেটিকে ‘ঘুষ’ হিসেবে প্রচার করার চেষ্টা করছে। পরে ওইদিনই তার বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

About admin

Check Also

রণেশ মৈত্রের মরদেহে ডেপুটি স্পীকারের শ্রদ্ধাঞ্জলি

জাতির পিতার একজন প্রিয় মানুষ ছিলেন রণেশ মৈত্র। সাংবাদিকতা ও সাহিত্যে তাঁর ছিল সাবলীল পদচারণা। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.